এসইও (SEO) কী? কীভাবে সঠিক ভাবে এসইও করবো?

এসইও (SEO) কী? কীভাবে সঠিক ভাবে এসইও করবো?



এসইও (SEO) কী? কীভাবে সঠিক ভাবে এসইও করবো?

Table of Contents

এসইও কী?


এসইও অর্থ সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন (Search Engine Optimization) হল ওয়েবসাইট এবং ওয়েবপেজগুলি সার্চ ইঞ্জিনে উচ্চতর রেঙ্কিং পেতে সহায়তা করার একটি প্রক্রিয়া। এসইও এর মাধ্যমে ওয়েবসাইট এবং ওয়েবপেজগুলি সার্চ ইঞ্জিন বা গুগল, বিইং, ইয়াহু ইত্যাদি প্রচলিত সার্চ ইঞ্জিনে স্থান পায় এবং সার্চ ইঞ্জিন ব্যবহারকারীদের অনুসন্ধানের ফলস্বরূপ পাতা বা লিঙ্কে পৌঁছে দেয়া হয়। 


এসইও কেন গুরুত্বপূর্ণ?


এসইও গুরুত্বপূর্ণ কারণ এটি ওয়েবসাইটের অভিজ্ঞতা ও প্রচারণার জন্য সামগ্রীর উন্নয়ন ও প্রচারণা বাড়ানোর জন্য সাহায্য করে। সার্চ ইঞ্জিন অনুসন্ধানের জন্য অ্যালগরিদম সঠিকভাবে ওয়েবসাইটকে পছন্দ করতে হলে এসইও এর ভুমিকা অসংখ্য গুরুত্বপূর্ণ উপাদানের মধ্যে রয়েছে। কিছু উদাহরণ হল -


1. সঠিক কীওয়ার্ড রিসার্চ করে সাইটে প্রকাশিত কন্টেন্টগুলি সার্চ ইঞ্জিনের দ্বারা খোঁজ পাওয়া হয়।


2. সঠিক কন্টেন্ট স্ট্রাকচার ব্যবহার করে ওয়েবসাইটকে বিশ্বব্যাপী উপাত্তে উঠানোর জন্য সাহায্য করে।


3. ইউজার এক্সপেরিয়েন্স উন্নয়নে সঠিক ডিজাইন এবং ব্যবহারকারী বন্ধুত্ব প্রচার করে।


সম্পূর্ণ দৃষ্টিভঙ্গি থেকে দেখলে, এসইও সার্চ ইঞ্জিন অনুসন্ধানে সাইটকে উন্নয়ন করে যা পরিণতি করে সাইটের ট্রাফিক বা প্রবেশকারীর সংখ্যা বাড়ানো এবং ওয়েবসাইটের ব্যবহারকারীর সম্পর্কে তথ্য সংগ্রহ করা সহজ হয়ে যায়। এসইও করা না থাকলে ওয়েবসাইট একটি সাধারণ পৃষ্ঠা হিসেবে থাকতে পারে এবং অস্থায়ী লক্ষ্যে থাকতে পারে।


এসইও করার মাধ্যমে ওয়েবসাইটে ভিজিটরের সংখ্যা বা প্রবেশকারীর সংখ্যা বাড়ানো হয়। এছাড়াও কাজের মাধ্যমে সংগ্রহকৃত তথ্য ব্যবহারকারীদের সাইটে আরও দ্রুত এবং সহজ পাওয়া যায়। এসইও করে ওয়েবসাইট এবং ব্র্যান্ড উন্নয়ন করা যায় এবং সর্বশেষ প্রযুক্তিগুলি ব্যবহার করে সাইটে বিশ্বব্যাপী উপাত্তে প্রবেশকারী উন্নয়ন করা যায়। 


সংক্ষেপে বলা যায় যে, এসইও ওয়েবসাইটের জন্য একটি প্রভাবশালী মার্কেট।


এসইও কেন করা হয়? : এসইও করা হয় যাতে ওয়েবসাইটের স্থান বাড়ানো যায় ও ওয়েবসাইটের দর্শকদের পছন্দমত ও বিষয়ভিত্তিক তথ্য প্রদান করা যায়। 


এসইও করা হয় প্রথমে ওয়েবসাইটের স্ট্রাকচার উন্নয়ন করে তার উপর ভিত্তি করে মূল্যবান ও মেটা ট্যাগগুলি সেট করে। এছাড়াও, ওয়েবসাইটের কন্টেন্টগুলি ভালোভাবে কীওয়ার্ড রিসার্চ করে প্রস্তুত করা হয়। এরপর ওয়েবসাইটের কন্টেন্টগুলি সঠিক পরিষ্কারতা সহ প্রকাশিত হয় যাতে সার্চ ইঞ্জিনগুলি তাদের ইনডেক্স করে রাখতে পারে। 


এছাড়াও, ব্যবহারকারীদের সাইটের বিষয়গুলি উপযুক্ত ভাবে ব্রাউজ করতে সাহায্য করতে ওয়েবসাইটের ইউজাবিলিটি উন্নয়ন করা হয়। 


এসইও করা হয় যাতে ওয়েবসাইটের ট্রাফিক বা দর্শকদের সংখ্যা বাড়ানো যায়।


এসইও নিচের ৮ ধরনে করা হয় - 

  • অন পেজ এসইও (On Page SEO)
  • অফ পেজ এসইও (Off Page SEO)
  • টেকনিক্যাল এসইও (Technical SEO)
  • কন্টেন্ট এসইও (Content SEO)
  • লোকাল এসইও (Local SEO)
  • মোবাইল এসইও (Mobile SEO)
  • ই-কমার্স এসইও (E-commerce SEO)


অন-পেজ এসইও ( On-Page SEO)

অন পেইজ এসইও হল ওয়েবসাইটের কনটেন্ট এবং উপাত্ত সম্পর্কে সম্পূর্ণ পর্যবেক্ষণ এবং পরিবর্তন করা, যাতে গুগল এবং অন্য সার্চ ইঞ্জিনের কাছে এটি উপযোগী হয়। অফ পেজ এসইও হল ওয়েবসাইটের বাইরের উপাত্ত যেমন লিঙ্ক বিল্ডিং, সোশাল মিডিয়া মার্কেটিং, অ্যাডভার্টাইজিং ইত্যাদি যা ওয়েবসাইটের পক্ষ থেকে বাইরের সূচকগুলির সাথে সম্পর্কিত হয়।

এসইও করা হয় উপযুক্ত কীওয়ার্ড নির্বাচন, কনটেন্ট ও উপাত্ত পরিবর্তন, ওয়েবসাইটের লিংকিং স্ট্রাটেজি উন্নয়ন এবং বিভিন্ন ওয়েবসাইট অ্যানালাইসিস টুল ব্যবহার করে। এসইও করার মূল লক্ষ্য হল গুগল এবং অন্যান্য সার্চ ইঞ্জিন থেকে উচ্চতর ট্রাফিক পেতে এবং ওয়েবসাইটের র‍্যাঙ্কিং বাড়ানো।

সঠিক এসইও করা সাধারণত একটি দীর্ঘসময় প্রক্রিয়া যা অধিকতর পরিবর্তনশীল এবং নির্ভরযোগ্য স্ট্রাটেজিগুলি ব্যবহার করে সম্ভব।


অফ-পেজ এসইও (Off-Page SEO)

অফ পেজ এসইও হল ওয়েবসাইট এবং এর কন্টেন্টের বাইরে সেবা প্রদান করার মাধ্যমে ওয়েবসাইট এবং কন্টেন্টের সুযোগ বা গুনগত মান বা র‍্যাংকিং উন্নয়নের একটি পদক্ষেপ। 


অফ পেজ এসইও এর মধ্যে বিভিন্ন প্রকার পদক্ষেপ রয়েছে, যা মূলত ওয়েবসাইট এবং এর কন্টেন্টের বাইরে সম্পর্কিত হয়। এসইও এর প্রধান উদ্দেশ্য হল ওয়েবসাইটের র‍্যাংকিং বা ভাল পজিশন উন্নয়ন করা এবং লক্ষ্যমূলক ট্রাফিক উপস্থাপন করা।


অফ-পেজ এসইও এর কি নিয়ম:

 • লিংক বিল্ডিং: অন্যান্য ওয়েবসাইট থেকে লিংক পাওয়া এবং ওয়েবসাইট সম্পর্কে বিভিন্ন সূচকগুলির সাথে লিংক স্থাপন করা।

• সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং: সোশ্যাল মিডিয়া সাইটগুলিতে ওয়েবসাইটের প্রচার করা।

• সংবাদ প্রচার: ওয়েবসাইটে সংবাদ প্রকাশ করা এবং সংবাদ প্রচারের মাধ্যমে ওয়েবসাইট প্রচারিত করা।

• ব্লগিং: ব্লগ লেখার মাধ্যমে ওয়েবসাইটের প্রমোশন এবং বিভিন্ন সামগ্রী তৈরি করা।

• ফোরাম মার্কেটিং: ওয়েবসাইট সম্পর্কে জানার জন্য বিভিন্ন ফোরামে প্রচার করা।

• প্রেস রিলিজ: প্রেস রিলিজের মাধ্যমে ওয়েবসাইট সম্পর্কে জানানো এবং প্রচারিত করা।


অফ পেজ এসইও এর সঠিক পদক্ষেপ নেওয়া ও সঠিক প্রচারের মাধ্যমে ওয়েবসাইটের র‍্যাংকিং ও ভাল পজিশন উন্নয়ন করা যেতে পারে। 



টেকনিক্যাল এসইও (Technical SEO) 

টেকনিক্যাল এসইও হল একটি এসইও প্রকার যা ওয়েবসাইটের টেকনিক্যাল বিষয়গুলির উন্নয়ন এবং পরিচালনার উপর ভিত্তি করে ওয়েবসাইটের ক্রমাগত পরিবর্তন এবং পরিসংখ্যানের মাধ্যমে ওয়েবসাইটের ক্রম উন্নয়ন করে।

টেকনিক্যাল এসইও সম্পর্কে কিছু উদাহরণ হল:


• সাইটের লোডিং স্পীড উন্নয়ন - এটি সাধারণত ওয়েবসাইট পেজের লোডিং সময় বা স্পীড উন্নয়নে ব্যবহৃত হয়। গুগল সার্চ এলগোরিদম সাধারণত সাইটের লোডিং স্পীড অনুমতি দেয়।

• ক্রল এবং ইনডেক্স এবং এসইও ফ্রেন্ডলি URL তৈরি করা - এটি ওয়েবসাইটের পেজগুলি পরিচালনার জন্য মূলত ব্যবহৃত হয়। ওয়েবসাইট বানানোর সময় ওয়েবসাইট ডেভেলপার সঠিক URL ব্যবহার করে পেজগুলি তৈরি করতে পারেন।

• ডুপ্লিকেট কন্টেন্ট সনাক্তকরণ এবং রেডিরেক্ট সেটআপ করা - এটি সাধারণত একই বা মোটামুটি একই কন্টেন্টের সমস্যার সামনে সাধারণত ব্যবহৃত হয়। সেটআপ করা যেতে পারে যেকোনো সমস্যার জন্য যেমন কন্টেন্ট ডুপ্লিকেট, ফেসবুক পোস্ট এবং একটি ওয়েবসাইটের একই পেজে একাধিক লিংক থাকলে।

• সাইট অ্যার্কিটেকচার পরিষ্কার করা - এটি ওয়েবসাইটের নেভিগেশন বা পরিচালনা সম্পর্কিত হয়। এটি কাজ করে সাইটের প্রতিটি পেজে কিভাবে ব্যবহারকারীরা সাইটে নেভিগেট করছেন তা বুঝতে সাহায্য করে এবং একটি স্মুদ নেভিগেশন সিস্টেম সেটআপ করতে সাহায্য করে।

• মোবাইল-ফ্রেন্ডলি সাইট ডিজাইন করা - এটি ওয়েবসাইট মোবাইল স্ক্রিনে ঠিকমত দেখা যায় কিনা সেটিও সংযোজিত হয়। গুগল সার্চ এলগোরিদম মোবাইল-ফ্রেন্ডলি ওয়েবসাইটগুলি উচ্চতর পরিষেবা দেওয়ার সুযোগ দেয়।

• সার্চ ইঞ্জিন ক্রলারের অ্যাকসেস দেওয়া - এটি ওয়েবসাইটের পেজগুলি গুগল সার্চ ইঞ্জিনে প্রবেশ দিতে সাহায্য করে।

• ওয়েবসাইটের জন্য ডাটা স্ট্রাকচার তৈরি করা - এটি ওয়েবসাইটের ডাটার স্ট্রাকচার এবং ট্যাগিং কে স্পষ্টতা এবং পরিষ্কারতা দিয়ে রাখে।

• ওয়েবসাইটের কন্টেন্ট স্ট্রাটেজি তৈরি করা - এটি ওয়েবসাইটের কন্টেন্ট পরিচালনা সম্পর্কিত। এটি ওয়েবসাইটের প্রতিটি পেজের উচ্চমানের কন্টেন্ট প্রদান করার জন্য সাহায্য করে।

এসইও একটি পরিসেবা যা ওয়েবসাইটের কোনও নির্বচনা ছাড়াই সকল ক্ষেত্রে প্রযুক্তির সাথে জড়িত থাকে। এটি প্রায় সমস্ত কোম্পানিতে গুরুত্বপূর্ণ হয় কারণ এর মাধ্যমে ওয়েবসাইটের প্রতিষ্ঠান ও প্রকাশকে বিশ্বস্ততা এবং স্থায়িত্ব প্রদান করা যায়।

এসইও একটি দক্ষতার প্রয়োজন এবং সেটিকে নিজেদের সমস্যার সমাধান করার জন্য কোর্স এবং ওয়েবিনার সম্পর্কে জানতে পারেন। এছাড়াও ওয়েব সাইটে টেকনিক্যাল সেটাপ নির্মাণ এবং ব্যবহারকারীর জন্য উপযুক্ত কন্টেন্ট তৈরি করার জন্য সেটিকে প্রয়োজনীয় করে নেওয়া উচিত।

এসইও একটি নিশ্চিত করার জন্য ওয়েবসাইট এবং কন্টেন্ট বিষয়ে বিস্তারিত জানতে হবে। এটি কোনও সমস্যার সমাধান নয় বরং একটি ব্যবসায়িক কাজ যা সমস্যাগুলি সমাধান করে ওয়েবসাইটে আরও ভাল ট্রাফিক এবং উপভোগ সম্পর্কে নিশ্চিততা প্রদান করে।

কন্টেন্ট এসইও (Content SEO)

কন্টেন্ট এসইও (Content SEO) হল ওয়েবসাইট এবং ব্লগ পোস্ট লেখার জন্য ব্যবহৃত একটি পদক্ষেপ যা ব্যবহারকারীদের জন্য উপযোগী, পরিপূর্ণ এবং অস্পষ্ট না করে সামগ্রী প্রকাশ করতে সাহায্য করে। 


কন্টেন্ট এসইও করার জন্য কয়েকটি করনীয় রয়েছে, যা নিম্নলিখিতঃ


• টার্গেট কীওয়ার্ড নির্ধারণ করা - একটি পোস্ট লেখার সময় আপনাকে নির্দিষ্ট একটি কীওয়ার্ড নির্বাচন করতে হবে যা আপনার টার্গেট পাবলিকের চাহিদার সাথে মিলে। 


• সঠিক টাইটেল এবং ডেসক্রিপশন ব্যবহার করা - কোন পোস্ট লেখার সময় আপনার টাইটেল এবং ডেসক্রিপশন সঠিক ও আকর্ষণীয় হতে হবে। 


• শিরোনাম এবং সাবহেডিং ব্যবহার করা - শিরোনাম এবং সাবহেডিং ব্যবহার করে লেখার সাজসজ্জা ও উপযুক্ত ভাবে পাঠকদের পরিচিত করতে সহায়তা করে।


• উপযোগী এবং সঠিক কন্টেন্ট প্রকাশ করা - যে কোন পোস্ট লেখার সময় পাঠকদের কাজে লাগবে উপযুক্ত এবং উপযোগী সংশোধন। 


• ইমেজ ও ভিডিও ব্যবহার করা - ইমেজ এবং ভিডিও ব্যবহার করে পোস্ট আরো আকর্ষণীয় ও উপযুক্ত হয়। 


• ব্যাকলিংক সংযোজন করা - ব্যাকলিংক করে পোস্ট টি আরো সম্পূর্ণ ও নিরাপদ হয়। 


এসইও কন্টেন্ট সম্পর্কে নির্দিষ্ট করতে হলে এটি নির্দিষ্ট করা যেতে পারে যে আপনি কন্টেন্ট তৈরি করতে যে সমস্ত করনীয় করেছেন তা সঠিকভাবে ও অসংখ্য পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে।



লোকাল এসইও (Local SEO)

লোকাল এসইও হল এমন একটি পদক্ষেপ যার মাধ্যমে আপনার ব্যবসার লোকাল স্থানীয় সনাক্তকরণ অনুযায়ী অনুসন্ধান ফলপ্রস্তুতির সুবিধা বাড়ানো হয়। লোকাল এসইও মূলত এমন একটি কার্যক্রম যা স্থানীয় ব্যবসাদের লক্ষ্য করে। 

লোকাল এসইও কীভাবে কাজ করে?

লোকাল এসইও একটি স্থানীয় ব্যবসার ওয়েবসাইট থেকে লোকাল অনুসন্ধান করার জন্য পরিচালিত পদক্ষেপ যা সম্ভবতঃ তাদের উপস্থিতি এবং লোকাল সনাক্তকরণ বাড়াতে সাহায্য করে। 


এই এসইও এর কিছু উদাহরণ হলঃ 


1. লোকাল সনাক্তকরণ - আপনার ওয়েবসাইটের তথ্যে স্থানীয়তা নির্দিষ্ট করা। এটি নাম, ঠিকানা এবং ফোন নম্বরের সাথে জড়িত হতে পারে। 


2. এলাকার বর্ণনা - একটি ভিশনের মাধ্যমে এলাকার বর্ণনা যোগ করে উপস্থিতি বাড়াতে সাহায্য করে।


3. লোকাল কীওয়ার্ড অনুসন্ধান - লোকাল সনাক্তকরণ সম্পর্কিত অনুসন্ধান করার জন্য লোকাল কীওয়ার্ড ব্যবহার করা যেতে পারে। 


4. মোবাইল বন্ধুত্বপূর্ণ ডিজাইন - আপনার ওয়েবসাইটটি মোবাইল বন্ধুত্বপূর্ণ এবং একটি স্মার্টফোন ব্যবহার করে সহজে অ্যাক্সেস করা যায়। 


5. বিভিন্ন লোকাল ওয়েবসাইট থেকে স্থানীয় লিঙ্ক প্রাপ্ত করুন - আপনি অন্যান্য স্থানীয় ব্যবসাদের ওয়েবসাইট থেকে লিঙ্ক প্রাপ্ত করতে পারেন। 


লোকাল এসইও কেন গুরুত্বপূর্ণ?


লোকাল এসইও ব্যবসার জন্য গুরুত্বপূর্ণ কারণ হল এর মাধ্যমে ব্যবসার মানুষ সনাক্ত করা হয়। লোকাল ব্যবসাদ থেকে ক্রেতা সম্পর্কিত তথ্য একটি অতুলনীয় সুবিধা যা অন্যান্য ধরনের সংশ্লিষ্ট পদক্ষেপগুলির সাথে তুলনায় অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ হলেও লোকাল এসইও সম্পর্কে কিছু সাধারণ মিথস রয়েছে যা প্রস্তুত নিচ্ছি। 


1. লোকাল এসইও কেবল মানব সনাক্তকরণ সম্পর্কিত - লোকাল এসইও আপনার ওয়েবসাইটের সনাক্তকরণ প্রস্তুত করার জন্য অনেক কাজ করা লাগে। 


2. লোকাল এসইও একটি প্রতিযোগিতামূলক মাধ্যম - লোকাল এসইও একটি প্রতিযোগিতামূলক বিষয় নয়। 


3. লোকাল এসইও কেবল একটি এলগোরিদম - লোকাল এসইও একটি এলগোরিদম নয়। এটি বিভিন্ন পরিষেবা ও টুলস ব্যবহার করে সম্পন্ন হয়। 


লোকাল এসইও এর মাধ্যমে ব্যবসার মানুষ সনাক্ত করে নিতে সম্ভব এবং তাদের সাথে সম্পর্ক গড়ে তুলতে সম্ভব। এর মাধ্যমে আপনি স্থানীয় বাজারে সম্পন্ন হতে পারেন।



মোবাইল এসইও (Mobile SEO)

মোবাইল এসইও হল মোবাইল ডিভাইস ব্যবহারকারীদের জন্য ওয়েবসাইট অ্যাকসেস করার প্রক্রিয়ায় সম্পূর্ণরূপে সম্প্রদায়সমূহের সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ ও উন্নয়নশীল ওয়েবসাইট সংজ্ঞায়িত করার পদক্ষেপ। 


মোবাইল এসইও হল ওয়েবসাইট ডিজাইন, কন্টেন্ট ও পেজ লোডিং স্পীড এবং ব্যবহারকারী অভিজ্ঞতা সম্পর্কিত উন্নয়নের জন্য সম্পূর্ণরূপে সেট করা একটি পরিকল্পনা। 


মোবাইল এসইও এর জন্য কিছু গুরুত্বপূর্ণ ফেক্টরগুলি হল -


1. সংক্ষিপ্ত এবং প্রভাবশালী টাইটেল ব্যবহার করা।


2. ব্যবহারকারীর অভিজ্ঞতাকে বৃদ্ধি করতে একটি ভিন্নধর্মী লেআউট ব্যবহার করা। 


3. পেজ লোডিং স্পীডকে উন্নয়ন করা। 


4. প্রযুক্তি ব্যবহার করে মোবাইল ব্যবহারকারীদের জন্য সহজে বাংলা অনুবাদ করা।


5. ভিন্নধর্মী মোবাইল ডিভাইসের জন্য সমর্থিত ডিজাইন সম্পর্কে যতটা সম্ভব লক্ষ্য রাখা।


6. সহজবোধ্য ও সংক্ষিপ্ত কন্টেন্ট লিখা।


7. অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহারের মাধ্যমে ব্যবহারকারীদের জন্য প্রযুক্তি উন্নয়ন করা।


8. মোবাইল সাইটে মানসম্পন্ন মানসম্পন্ন স্থান দেখানো যেতে পারে এবং একটি মানসম্পন্ন ওয়েবসাইটের তুলনায় একটি অনলাইন ডিরেক্টরি তৈরি করা যেতে পারে।


মোবাইল এসইও গুরুত্বপূর্ণ হল কারণ আধুনিক সময়ে বেশিরভাগ মানুষ মোবাইল ডিভাইস ব্যবহার করে ইন্টারনেট ব্রাউজ করেন। তাই একটি ওয়েবসাইট যদি মোবাইল ব্যবহারকারীদের জন্য উপযুক্ত হয় না তবে সে সম্ভবত বেশ কিছু ক্লিক হতে পারে। তাই মোবাইল এসইও সেই ব্যবহারকারীদের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

ই-কমার্স এসইও (E-commerce SEO)

ই-কমার্স এসইও (E-commerce SEO) হল ইন্টারনেটের মাধ্যমে পণ্য বা সেবা বিক্রি করা সাইটের জন্য সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন যা সাইটটির ট্রাফিক বা ভিজিটরদের সংখ্যা বাড়ানো এবং উন্নয়নের উদ্দেশ্যে সম্পূর্ণ পদক্ষেপগুলো গ্রহণ করে। এসইও এর মাধ্যমে ই-কমার্স ওয়েবসাইটগুলি সার্চ ইঞ্জিন এলগোরিদমের মাধ্যমে র‌্যাংক করে এবং অধিক ট্রাফিক ও বিক্রি উপলব্ধি করতে সাহায্য করে।


ই-কমার্স এসইও সম্পর্কিত কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো: কীওয়ার্ড রিসার্চ, পেইজ টাইটেল এবং মেটা ডেসক্রিপশন অপটিমাইজেশন, কন্টেন্ট অপটিমাইজেশন, সাইট স্পিড অপটিমাইজেশন, উচ্চ মানের লিংক ব্যাকলিংক এবং ইউজাবিলিটি অপটিমাইজেশন।


এসইও এর মাধ্যমে সঠিক উপায়ে ই-কমার্স ওয়েবসাইট অপটিমাইজে এসইও এর মাধ্যমে সঠিক উপায়ে ই-কমার্স ওয়েবসাইট অপটিমাইজেশন করা যেতে পারে এবং এটি আপনার ওয়েবসাইটের দারক সামগ্রী ও আবিষ্কারপ্রবণতা বাড়ানোর জন্য সহায়তা করতে পারে। এসইও এর মাধ্যমে সাইটের বিভিন্ন সেকশনের জন্য স্পেশাল টেকনিক ব্যবহার করা হয় যাতে সাইটটি সার্চ ইঞ্জিন স্পাইডারগুলির দ্বারা ভাল ভাবে বোঝা যায়। একটি ভাল এসইও স্ট্রাটেজি সাইটের জন্য প্রয়োজনীয় সকল ফ্যাক্টরকে উপস্থাপন করে এবং তা সার্চ ইঞ্জিন মেশিন এলগোরিদমের সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ করে।


এসইও অপটিমাইজেশনে কীওয়ার্ড রিসার্চ একটি খুব গুরুত্বপূর্ণ প্রক্রিয়া। এটি সাইটের পণ্যের সম্ভাব্য খোঁজপত্র শব্দগুলি খুঁজে বের করে এবং এগুলির উপর ভিত্তি করে কন্টেন্ট তৈরি করা হয়।



কন্টেন্ট লেখার আগে অবশ্যই মাথায় রাখুন

একটি ভালো কনটেন্ট লেখার জন্য আগে কিছু বিষয় মাথায় রাখা প্রয়োজন। সেগুলি হলো:

১। কোন লেখার জন্য লিখছেন তা সম্পর্কে ধারণা থাকা। 

২। লেখার লক্ষ্য কী। লেখা কেন লিখছেন, কেন প্রকাশ করছেন এবং কার জন্য লেখাটি লিখা হচ্ছে তা স্পষ্ট থাকতে হবে। 

৩। লেখার টার্গেট অডিয়েন্স কে হবে তা সম্পর্কে ধারণা থাকা। আপনি যে লেখা লিখছেন, সেটি কার জন্য লিখছেন তা সঠিকভাবে বুঝতে হবে। 

৪। প্রথম প্যারাগ্রাফে লেখার বিষয়টি সংক্ষেপে উল্লেখ করা। 

৫। লেখার শিরোনাম সম্পর্কে ভালো করে চিন্তা করা। একটি ভালো শিরোনাম দর্শকদের আকর্ষণ করে এবং লেখাটি পড়তে উৎসাহ উত্পাদন করে। 

৬। লেখার বিষয়টি উপযুক্ত কীওয়ার্ড রিসার্চ করে নির্বাচন করা। 

৭। কনটেন্টের লেআউট উন্নয়ন করা হয়। লেখার টেকনিক্যাল অংশে ধারণা থাকা জরুরী। লেখার ফন্ট, সাইজ, কালার, লাইন স্পেসিং এবং প্যারাগ্রাফ মানচিত্রে আনা থাকা উচিত। 

৮। লেখাটি সংগ্রহযোগ্য হওয়া উচিত। এটি তথ্যমূলক হওয়া উচিত এবং একটি আকর্ষণীয় স্টাইলে লেখা উচিত। 

৯। লেখাটি বিভিন্ন শ্রেণিতে ভাগ করে নিশ্চিত করা উচিত। 

১০। লেখাটির মাধ্যমে প্রতিষ্ঠানের লক্ষ্যমাত্রা প্রদর্শন করা উচিত। 

এছাড়াও, লেখার জন্য সঠিক লেখক পদক্ষেপগুলি নেওয়া উচিত, যেমন গভীর লেখা করা, বিভিন্ন সূত্রের উদ্ধৃতি ব্যবহার করা এবং কনটেন্টে ইনটারলিংক ব্যবহার করা ইত্যাদি। 

2 Comments

  1. ধন্যবাদ শেয়ার করার জন্য

    ReplyDelete

Post a Comment

Previous Post Next Post